মেনু নির্বাচন করুন

শ্রদ্ধাঞ্জলী

বাংলাদেশের অভ্যূধ্যয়ে যে লোকটি তার জীবনের সর্বস্ব উজাড় করে পৃথিবীর ইতিহাসে একটি নতুন দেশ উপহার দিয়েছেন ,স্বাধীন বাংলার মহান স্থপতি  বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ৪৩তম শাহাদত বার্ষিকীতে বিনম্র শ্রদ্ধাঞ্জলি। শোক দিবসের শপথ হোক জাতির জনকের স্বপ্ন পূরণের অঙ্গীকার ।  বাঙালী জাতি আজ গভীর শোক ও শ্রদ্ধায় তাঁর শ্রেষ্ঠ সন্তানকে স্মরণ করবে।  জাতীয় শোক দিবসে আজ বাঙালী জাতি গভীর শোক ও শ্রদ্ধায় স্মরণ করবে বাংলাদেশ নামক ভূখ-ের স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধুকে  ।    এদিন যেমন শোকার্ত হওয়ার দিন, তেমনি শোককে শক্তিতে পরিণত করে বঙ্গবন্ধুর চেতনাকে সমুন্নত রাখার জন্য সর্বাত্মক প্রচেষ্টার শপথ গ্রহণেরও দিন ।  বীরত্ব, সাহস ও তেজস্বীতার স্বকীয় বৈশিষ্ট্যে  বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের  ছিলেন ভাস্বর । স্বাধীনতার মহান স্থপতি হিসাবে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাংগালী জাতির জন্য সম্ভাবনার অসীম দিগন্ত উন্মোচন করিয়া গিয়াছেন । কিন্তু আজ বঙ্গবন্ধু নেই। তার সপ্ন এদেশের মানুষের অর্থনৈতিক মুক্তি আজ অাংশিকভাবে পূরণ হয়েছে ।  জাতীসংঘ বাংলাদেশকে উন্নয়নশীল দেশ হিসাবে ঘোষণা করেছে ।

 ২০০৪ সালে বিবিসি'র বাংলা রেডিও সার্ভিসের পক্ষ থেকে সারা বিশ্বে যে জরিপ চালানো হয়, তাতে মুজিব সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি হিসেবে বিবেচিত হন।

জোটনিরপেক্ষ সম্মেলনে কিউবার রাষ্ট্রপতি ফিদেল ক্যাস্ত্রো বঙ্গবন্ধুকে আলিঙ্গন করে বলেছিলেন, ‘আমি হিমালয় দেখিনি, কিন্তু শেখ মুজিবকে দেখেছি।’
আজ এই শোকাহত দিনে আমরা পরম শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করি এই মহান নেতাকে। স্মরণ করি তাঁর কাজ, তার চেতনা ও তাঁর আদর্শকে ।

কানে বারংরার যেন বেঝে উঠছে-

“যতদিন রবে পদ্মা মেঘনা যমুনা বহমান,

ততদিন রবে কীর্তি তোমার শেখ মুজিবুর রহমান “


Share with :

Facebook Twitter